যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিদ্ধ কয়েকজন প্রসিডেন্ট

White House

যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত ৪৫ জন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেছেন। তাদের ভিতর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিদ্ধ কয়েকজন প্রসিডেন্ট এর সম্পর্কে আজকের আলোচনা।

জর্জ ওয়াশিংটন(Geirge Washington)

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম প্রেসিডেন্ট জর্জ ওয়াশিংটন।তিনি যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা যুদ্ধের সর্বাধিনায়ক ছিলেন।তিনি যুক্তরাষ্ট্রের একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি কখনো হোয়াইট হাউসে থাকেন নি।

আব্রাহাম লিংকন(Abraham Lincoln)

আব্রাহাম লিংকন ছিলেন ১৬ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।তিনি ১৮৬১ থেকে ১৮৬৫ পর্যন্ত ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত ছিলেন।১৮৬৩ সালে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দাস প্রথার অবসান ঘটান এবং চুক্তির মাধ্যমে(দ্বাসত্ব-মোচন চুক্তি) দাসদের মুক্ত করেন।১৮৬৩ সালে সালের ২১ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট লিংকন ২ মিনিট স্থায়ী তার বিখ্যাত গেটিসবার্গ ভাষণ দেন।তার বিখ্যাত উক্তিঃ”Democracy is a government of the people,by the people,for the people.” “The ballot is stronger than bullet.” ১৮৬৫ খ্রিস্টাব্দের ১৫ এপ্রিল আততায়ীর গুলিতে নিহত হন।তিনিই আততায়ীর হাতে খুন হওয়া প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ফ্রাঙ্কলিন ডি.রুজভেল্ট(Franklin D.Rooselvet)

ফ্রাঙ্কলিন ডি.রুজভেল্ট ছিলেন ৩২ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।তিনি ১৯৩৩ সাল থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ ১২ বছর ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত ছিলেন।টানা দুইবারের অধিক সময়ের জন্য প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হন তিনি।

১৯২৯ সালের ২৯ অক্টোবর থেকে ১৯৪০ সাল পর্যন্ত স্থায়ী চরম অর্থনৈতিক মন্দা মোকাবিলার জন্য প্রেসিডেন্ট রুজভেল্ট ১৯৩৩ নিউ ডিল ব্যবস্থা প্রবর্তন করেন।

জন এফ কেনেডি(Jhon F.Kennedy)

জন এফ কেনেডি ছিলেন ৩৫ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।তিনি তার অভিষেক ভাষনে বলেন,”Ask not what your country can do for you,ask you can do for your country.” আরও বলেন,”Let us never negotiate out of fear.But let us never fear to negotiate” কিউবার ক্ষেপণাস্ত্র সংকট তার শাসনামলের উল্লেখযোগ্য ঘটনা।

রিচার্ড নিক্সন(Richard Nixon)

প্রেসিডেন্ট নিক্সন ছিলেন রিপাবলিক দলের প্রার্থী।বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ছিলেন।নির্বাচনের সময় তিনি টেপ রেকর্ডারের মাধ্যমে ডেমোক্রেটিক সদর দপ্তরের কথা-বার্তা শোনেন।

ওয়াশিংটন ডিসি এর ওয়াটারগেট হোটেল ছিলো ডেমোক্র্যাটদের সদর দপ্তর।১৯৭২ সালে এই ঘটনা জানাজানি হওয়ায় এই ঘটনা ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারী নামে পরিচিত।

জেরাল্ড ফোর্ড(Gerald Ford)

প্রেসিডেন্ট নিক্সন পদত্যাগ করলে সাংবিধানিকভাবে জেরাল্ড ফোর্ড ৩৮ তম প্রেসিডেন্ট হিসাবে ক্ষমতায় আসে।মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে তিনিই একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি সাধারণ নির্বাচনের মাধ্যমে প্রেসিডেন্টের হয় নি।

রোন্যাল্ড রিগ্যান(Ronald Reagan)

মার্কিন প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যান একজন অভিনেতা ছিলেন।১৯৮৩ সালে ভূমি ও মহাকাশে পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র আক্রমণ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার পরিকল্পনা(SDI) নেয়। সমালোচকেরা একে STAR WAR এর পরিকল্পনা হিসাবে অভিহিত করেছেন।১৯৮৩ সালে তিনি গ্রানাডায় সামরিক আগ্রাসন চালান।

বিল ক্লিনটন(Bill Clinton)

আমেরিকার ৪২ তম প্রেসিডেন্ট হলেন বিল ক্লিনটন।২০০০ সালের ২০ মার্চ বিল ক্লিনটন একদিনের সফরে ঢাকা আসেন।মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট থাকা অবস্থায় তিনি বাংলাদেশ সফরে এসেছিলেন।

বারাক ওবামা(Barak Obama)

কেনীয় বংশোদ্ভূত বারাক ওবামা হলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট।২০০৯ সালে তিনি ৪৪ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।এর আগে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইলিয়ন অঙ্গরাজ্যের সিনেটর ছিলেন।

২০০৯ সালে তিনি শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার লাভ করেন।২০০৯ সালে মিশরের কায়রোর আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি মুসলিম বিশ্বের প্রতি শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন।ব্যাংকিং খাতে ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের চতুর্থ বিনিয়োগ ব্যাংক ‘লেমন ব্রাদার্স’ বন্ধ হয়ে যায়।ফলে নতুন করে বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দা সৃষ্টি হয়।তার অভিষেক ভাষণে উপস্থিত দর্শকদের সংখ্যা ছিল ১৮ লাখ।

ডোনাল্ড ট্রাম্প(Donald Trump)

ডোনাল্ড ট্রাম্প হলেন ৪৫ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আলোচিত।অধিকাংশ পত্র-পত্রিকার হিসাব অনুযায়ী তার অভিষেক ভাষণে প্রায় ২ লাখ শ্রোতা উপস্থিত ছিলো।

তিনি ক্ষমতা গ্রহণের সাত দিনের মধ্যে এক নির্বাহী আদেশে ৯০ দিনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম প্রবেশ নিষিদ্ধ করার আদেশ দেন।কিন্তু তীব্র আন্দোলন হওয়ার সেই চেষ্টা ব্যাহত হয়।তিনি একজন ব্যাবসায়ী,অভিনেতা এবং পাশাপাশি একজন সাংবাদিক।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিদ্ধ কয়েকজন প্রসিডেন্ট সম্পর্কে আপনার মন্তব্য করতে পারেন।

আরও পড়ুন

লিখেছেন
আল শাহরিয়া
একাদশ শ্রেণি
সরকারি সুন্দরবন আদর্শ কলেজ,খুলনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here