চাকরির আবেদনে ছবি ও স্বাক্ষর এডিট করুন নিজেই

চাকরির আবেদনে ছবি ও স্বাক্ষর এডিট করুন নিজেই মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে। কিভাবে এই অসাধ্য কাজ সহজ করা যায়, সেই আলোচনা হবে আজ।

আমরা যারা অফিশিয়াল বেকার আছি, অর্থাৎ যারা অনার্স বা মার্স্টার্স পাশ করে বসে আসেন, তাদের হয়তো প্রতি মাসেই চাকরির আবেদন করা লাগে।

আর চাকরির আবেদন যদি নিজে করতে যান, তাহলে সবচেয়ে বড় বাধা আসে ছবি বা আপনার স্বাক্ষর এডিট। কারণ এগুলো এডিটের জন্য সফটওয়্যার টার নাম মাথায় আসে সেটা এডোবি ফটোশপ।

এই সফটওয়্যার টা অনেক ভারি আবার অনেকের কাছে নেই বা থাকলে আমরা এটা দিয়ে ছবি এডিট করতে পারি না।

এর সমাধান আমরা করার চেষ্টা করবো কিছু ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। এই ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করতে আপনার কোন টেকনিক্যাল নলেজ লাগবে না। আপনি আপনার ছবি ও স্বাক্ষর মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে করতে পারবেন।

চাকরির আবেদনে ছবি ও স্বাক্ষর এডিট

ধাপঃ ০১

প্রথমে আমরা আমাদের কাঙ্ক্ষিত ছবিটা ক্রপ করে, চাকরির আবেদনের উপযোগী করে নিবো। আশা করি, এই ক্রপের কাজ টা সবাই পারবেন। কারণ এই অপশন টা মোবাইল বা কম্পিউটারে ডিফল্ট হিসেবে থাকে।

ধাপঃ ০

এরপর আমরা remove.bg ওয়েবসাইটে যাবো। এই ওয়েবসাইট দ্বারা আপনি খুব সহজে আপনার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে ফেলতে পারবেন। এই ওয়েবসাইট নিচের ছবির মত একটা Upload Image একটা বাটন পাবেন, এখানে চাপ দিলেই আপনি আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত ছবি আপলোডের অপশন পাবেন।

ছবি আপলোডের পর, অটোমেটিক্যালি আপনার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ হয়ে যাবে। তখন আপনি সেই ব্যাকগ্রাউন্ড হীন ছবিটা ডাউনলোড করবেন এবং ঠিক করে রাখবেন কোন ফোল্ডারে এটি রাখছেন।

ধাপঃ ০৩

আপনি যে ছবিটা ডাউনলোড করেছে সেটি ব্যাকগ্রাউন্ড হীন একটি .png ফরম্যাটের ছবি এবং সাইজও একটু বড় হতে পারে। এই ফরম্যাটের ছবি অনেক জায়গায় গ্রহণযোগ্য না। এজন্য আপনাকে .jpg ফরম্যাটের ছবি করতে হবে।

আর এই কাজটি করতে পারেন আপনি png2jpg.com ওয়েবসাইটে গিয়ে। এখানে Upload Files নামক অপশনটি ব্যবহার করে আপনি আপনার সেই .png ছবিটাকে .jpg ফরম্যাটে রুপান্তর করতে পারেন। এরপর এখান থেকে ছবি বা ইমেজটি ডাউনলোড করে নিবেন। এবার দেখবেন ব্যাকগ্রাউন্ড সাদাওয়ালা একটা সুন্দর ছবি এবং আপনার চাকরির আবেদনের উপযোগী।

ধাপ ০৪

কিন্তু আপনার কাজ শেষ হয়ে যায়নি। আপনি হয়তো খেয়াল করেছেন চাকরির আবেদনে সাধারণত ছবি 300×300 pixels বা 600×600 pixels(ব্যাংকে চায় এটা) এবং স্বাক্ষর সাধারণত 300×80 pixels চায়।

300×80 pixels মানে হচ্ছে ছবিটার প্রস্থ 300 pixels এবং উচ্চতা 80 pixels

এই ফরম্যাটে আপনাকে আপনার ছবিটাকে আনতে চাইলে আপনে যেতে হবে picresize.com

এখানে আপনি ছবি আপলোডের অপশন পাবেন। ছবি আপলোড হয়ে গেলে আপনাকে

বাটনে ক্লিক করে নিচের দিকে গেলে Resize Your Picture: নামক অপশন পাবেন এবং এর নিচে 50% smaller এ ক্লিক করলে Custome Size একটা আপশন পাবেন।

ওখানে নিচের ছবির মত আসবে।

এখান থেকে আপনি কাঙ্ক্ষিত Width & Hight দিয়ে Save as এ গিয়ে .jpg সিলেক্ট করুন এবং সবশেষে I’AM DONE, RESIZE MY PICTURE বাটন চাপুন।

তখন নিচের ছবির মত একটা ওয়েবপেজে যাবেন। এখান থেকে Save to Disk এ ক্লিক করলেই আপনার ইমেজটি ডাউনলোড হয়ে যাবে এবং আপনি এটা চাকরির পরীক্ষায় ব্যবহার করতে পারবেন।

এভাবে আপনি খুব সহজে নিজেই নিজের চাকরির আবেদনে ছবি ও স্বাক্ষর এডিট করতে পারবেন।

ছবির কোয়ালিটি ঠিক রেখে কিলোবাইট কমানো

আপনি যদি চান, আপনার ছবির কোয়ালিটি ঠিক থাকবে কিন্তু তার সাইজ কমে যাবে অর্থাৎ কিলোবাইট কমে যাবে, তাহলে আপনাকে যেতে হবে tinyjpg.com ওয়েবসাইটে। এখানে গিয়ে আপনার ইমেজটিকে আপলোড করুন, এই ওয়েবসাইট ইমেজকে প্রসেসিং করে সাইজ কমিয়ে দেবে এবং একটা ডাউনলোড অপশন দিবে।

ওখান থেকে আপনার ইমেজটি আপনি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন এবং দেখবেন আপনার ছবির সাইজ অনেকাংশেই কমে গেছে।

এই পদ্ধতি আপনার যেকোন ইমেজের জন্য করতে পারেন, বিশেষ করে কোন ছবি যখন কোন ছবি অনলাইনে আপলোড দিতে তখন অনেক কম সাইজের ইমেজ লাগে। সেক্ষেত্রে আপনি এই ওয়েবসাইটের সাহায্য নিতে পারবেন।

আশা করি, এখন থেকে আপনার চাকরির আবেদনে ছবি ও স্বাক্ষর এডিট করুন নিজেই করতে পারবেন।

আরও গুরুত্বপূর্ণ লিংক

Leave a Reply